নানামুখী চ্যালেঞ্জে শুরু নতুন অর্থবছর...

নানামুখী চ্যালেঞ্জে শুরু নতুন অর্থবছর...

নানামুখী চ্যালেঞ্জ নিয়ে শুরু হলো অর্থবছর ২০২২-২৩। উচ্চ মূল্যস্ফীতি, ভর্তুকির চাপ, অস্থিতিশীল মুদ্রা বিনিময় হারসহ নানা কারণে অস্থির সামষ্টিক অর্থনীতি। এ অবস্থায় নতুন অর্থবছর খুব একটা স্বস্তির হবে না। চলতি অর্থবছরের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ আর বিনিয়োগ বৃদ্ধি বলছেন, অর্থনীতিবিদরা। এ পরিস্থিতিতে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়াতে সরকারের প্রয়োজনীয় নীতি সহায়তা চান ব্যবসায়ীরা।

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ক্রমেই কমছে টাকার মূল্য। কমছে রেমিট্যান্স প্রবাহও। আমদানি ব্যয়ের উর্ধ্বগতিতে অনেকটাই ভারসাম্যহীন বাণিজ্য ঘাটতি। পাশাপাশি, মূল্যস্ফীতির চাপে সাধারণ মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে, শুরু হলো নতুন অর্থবছর ২০২২-২৩।
বিশ্লেষকরা বলছেন, চলতি অর্থবছরের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও বেসরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধি। মূল্যস্ফীতির লাগাম টেনে ধরতে, বেসরকারি খাতে ঋণ সরবরাহ কমানোর লক্ষ্য নেয়া হয়েছে।

তবে নতুন অর্থবছরে সরকার ব্যাংক খাত থেকেও অনেক বেশি ঋণ নেয়ার লক্ষ্য ঠিক করেছে। এ অবস্থায় বেসরকারি বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত হয়ে কর্মসংস্থানে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার আশংকা করছেন ব্যবসায়ীরা।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে সব ক্ষেত্রে সংযত ও সংযমী হওয়ার তাগিদ দিচ্ছেন অর্থনীতিবিদরা। এতে করে চলতি হিসাবে ভারসাম্য আসলেও, বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত হতে পারে। তাই চলতি অর্থবছরে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন নিয়ে আশংকা রয়েছে বলে জানান, পিআরআই এর নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর।

চলতি অর্থবছরে ভর্তুকি ব্যবস্থাপনার সঠিক বাস্তবায়ন ও প্রয়োগ চান অর্থনীতিবিদরা। এ ছাড়া এ বছর রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা। এ রাজস্ব আদায়ও বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন তারা।

#তমহ/বিবি/০২-০৭-২০২২

ক্যাটেগরী: অর্থনীতি

ট্যাগ: অর্থনীতি

অর্থনীতি ডেস্ক, বিবি শনি, জুলাই ২, ২০২২ ৪:১৯ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)