মিয়ানমারকে একঘরে...

মিয়ানমারকে একঘরে...

একাধিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধনের প্রতিবাদে মিয়ানমারকে বয়কট করার ডাক দিয়েছে । রয়টার্স জানায়, রাখাইনে মানবতাবিরোধী অপরাধ সংগঠিত করার অভিযোগে আন্তর্জাতিক আদালতে শুনানির একদিন আগে বিশ্বব্যাপী এমন কর্মসূচি দিল মানবাধিকার সংগঠনগুলো।

মঙ্গলবার নেদারল্যান্ডসে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) তিনদিন ব্যাপী এই শুনানি শুরু হবে। এতে অংশ নেয়ার জন্য ইতিমধ্যে হেগে পৌঁছেছেন মিয়ানমারের উপদেষ্টা অং সান সু চি নেতৃত্বাধীন একটি দল।

জার্মানভিত্তিক ফ্রি রোহিঙ্গা কোয়ালিশনস নামে একটি প্ল্যাটফর্ম ‘বয়কট মিয়ানমার ক্যাম্পেইন’ নামে এই কর্মসূচি ঘোষণা করে । এক বিবৃতিতে সংগঠনটি জানায়, ১০টি দেশের ৩০টি মানবাধিকার, শিক্ষাবিদ এবং পেশাজীবী সংগঠন নিয়ে তারা এই কর্মসূচি শুরু করেছেন। মিয়ানমার সরকার ও এর সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক, কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক চাপ বৃদ্ধি করতে কাজ করে যাবেন তারা।

এই ক্যাম্পেইনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে রেস্টলেস বিংস, ফরসি ডট কো, ডেস্টিনেশন জাস্টিস, রোহিঙ্গা হিউম্যান রাইটস ইনিশিয়েটিভ অব ইন্ডিয়া, রোহিঙ্গা হিউম্যান রাইটস নেটওয়ার্ক অব কানাডা ও এশিয়া সেন্টারের মতো সংগঠনগুলো।

সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণহত্যা ও জাতিগত নিধনের অভিযোগ এনে নভেম্বরে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিজে-এ মামলা করে আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট রাখাইনের কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলার ঘটনায় পূর্বপরিকল্পিত ও কাঠামোবদ্ধ সহিংসতা চালায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।

গণহত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সাত লাখেরও বেশি মানুষ। এই ঘটনায় বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) পক্ষে মামলাটি দায়ের করে গাম্বিয়া।

প্রসঙ্গত, গাম্বিয়া ও মিয়ানমার দুই দেশই ১৯৪৮ সালের জেনোসাইড কনভেনশনে স্বাক্ষরকারী দেশ। এই কনভেনশন শুধু দেশগুলোতে গণহত্যা থেকে বিরত থাকা নয়; বরং এ ধরনের অপরাধ প্রতিরোধ এবং অপরাধের জন্য বিচার করতে বাধ্য করে।

ক্যাটেগরী: বিশ্ব

ট্যাগ: বিশ্ব

বিশ্ব ডেস্ক, বিবি সোম, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯ ৬:৩৪ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)