লকডাউনে লোকসানে বিপিডিবি?

লকডাউনে লোকসানে বিপিডিবি?

লকডাউনে বন্ধ দোকানপাট ও কলকারখানা। তাই দেশে চাহিদা কমেছে বিদ্যুতের। গত এক সপ্তাহে চাহিদা কম ছিলো প্রায় তিন হাজার মেগাওয়াট। অথচ চাহিদার তুলনায় উৎপাদন বেশি। আবার কমে গেছে চাহিদা। এতে লোকসান বাড়বে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিপিডিবি)।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ২৩ জুলাই থেকে সারাদেশে টানা দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন চলছে। কারাখানা, দোকানসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কমেছে বিদ্যুতের ব্যবহার।

স্বাভাবিক সময়ে দেশে বিদ্যুতের চাহিদা থাকে ১৩-১৪ হাজার মেগাওয়াট। লকডাউন শুরুর ৫ দিন পর চাহিদা কমে দাঁড়ায় ১১ হাজার মোগাওয়াটে। পরদিন তা আরও ১ হাজার মেগাওয়াট কমে গিয়েছিলো। আর ৩০ জুলাই দেশে সর্বোচ্চ চাহিদা ছিল সাড়ে নয় হাজার মেগাওয়াট। এছাড়া অফপিকে চাহিদা কমে আরো দেড় হাজার মেগাওয়াট।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, উৎপাদন ক্ষমতা বেশি থাকায় স্বাভাবিক সময়েই অনেক বিদ্যুৎকেন্দ্র অলস অবস্থায় থাকে। এখন চাহিদা বেশি কমায় লোকসানও বাড়বে বিপিডিবির। এ অবস্থায় বর্তমান বিদ্যুৎ উৎপাদন এবং জিডিপির আকার বিবেচনায় বাড়তি বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা তৈরি না করতে বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন- বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

#তমহ/০২-০৮-২০২১

ক্যাটেগরী: অর্থনীতি

ট্যাগ: অর্থনীতি

অর্থনীতি ডেস্ক, বিবি সোম, আগষ্ট ২, ২০২১ ২:০২ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)