রাজস্ব ৮৮০ কোটি টাকা

রাজস্ব ৮৮০ কোটি টাকা

আয় বা সম্পদ গোপন রাখা। যার কোনো তথ্য থাকে না জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাছে। তা হচ্ছে- অপ্রদর্শিত আয়। লোকমুখে তা আবার -কালো টাকা। এ ধরনের সম্পদের বৈধতা দিতে বিশেষ সুযোগ দেয় এনবিআর। এবার যার ব্যবহার করেছেন ছয় হাজার ৯৩৭ জন। এতে কালো টাকা সাদা হওয়ার কারণে ৮৮০ কোটি টাকা রাজস্ব এসেছে এনবিআরে। ৩ জানুয়ারি রোববার এ তথ্য দিয়েছে তারাই।

এনবিআর আরো জানায়, কালো টাকার মালিকদের মধ্য পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেছেন ১৮৮ জন। বাকিদের কেউ স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ বৈধ করেছেন, আর কেউ বিনিয়োগ করেছেন আবাসনখাতে।

অনেক দিন ধরেই অপ্রদর্শিত সম্পদ বৈধ করার সুযোগ দিয়ে আসছে এনবিআর। তবে এবার সুযোগ অবারিত করা হয়। দেয়া হয় পুঁজিবাজার ও ব্যাংকে বিনিয়োগের সুযোগ। এমনকি স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ বৈধ করার সুযোগও রাখা হয়।

এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেছেন ১৮৮ জন। কর আদায় হয়েছে সাড়ে ২২ কোটি টাকা। আর আবাসনসহ অন্য খাতে সম্পদ বৈধ করেছেন ছয় হাজার ৭৪৯ জন। যা থেকে কর এসেছে ৮৫৮ কোটি টাকা।

এনবিআর সূত্র জানায়, বর্তমান আইনে, চলতি বছর জুন পর্যন্ত অপ্রদর্শিত অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা যাবে। বৈধ করা যাবে অপ্রদর্শিত সম্পদও। সেক্ষেত্রে দিতে হবে সংশোধিত রিটার্ন।

বিশ্লেষকরা বলেন, অল্প অপ্রদর্শিত সম্পদের মালিকেরা সুযোগ নিলেও বড়রা তেমন নিচ্ছেন না। বারবার এমন সুযোগ দেয়াকে অনৈতিকও বলছেন তারা।

এনবিআর কর্মকর্তারা জানান, যারা সুযোগ নিচ্ছেন না, তাদের প্রতি ভবিষ্যতে কঠোর হবে এনবিআর।

এনবিআরের তথ্যমতে, ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন জমা দিয়েছে প্রায় সাড়ে ২০ লাখ করদাতা। কর আদায় হয়েছে তিন হাজার ৭৬৪ কোটি টাকা। এছাড়া সময় বাড়ানোর আবেদন করেছেন আরো দেড় লাখ করদাতা।

#তমহ/বিবি/০৪-০১-২০২১

ক্যাটেগরী: অর্থনীতি

ট্যাগ: অর্থনীতি

অর্থনীতি ডেস্ক, বিবি সোম, জানুয়ারী ৪, ২০২১ ১১:৫১ পূর্বাহ্ন

Comments (Total 0)