মানব দেহে করোনা ভ্যাকসিনের সফল প্রয়োগ

মানব দেহে করোনা ভ্যাকসিনের সফল প্রয়োগ

মহামারি করোনাকে ঠেকাতে একের পর এক গবেষণার পর অবশেষে মানব শরীরে সফলভাবে করোনাভাইরাস প্রতিষেধক প্রয়োগ করতে সক্ষম হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন। প্রাথমিকভাবে আমেরিকার একটি বায়োটেকনোলজি সংস্থা মর্ডানা প্রতিষেধক টীকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করে। এরপর চীনের কানসিনো বায়োলজিস সংস্থার তরফে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয় কোভিড আক্রান্তের দেহে। উভয় সংস্থারই দাবি তাদের আবিষ্কৃত ভ্যাকসিনে মানবদেহ থেকে সরানো যাবে এই ভাইরাসকে।

ইতিমধ্যেই বিশ্বে প্রায় ৫৫ লক্ষের উপর মানুষ আক্রান্ত এই নভেল করোনাভাইরাসে। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩ লক্ষ ৩৮ হাজার ২৪৯ জনের। গোটা পৃথিবী কার্যত লকডাউনে বন্দি। ধুঁকছে সব দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি। এই অবস্থায় একমাত্র ভ্যাকসিনই পারে দীর্ঘমেয়াদি এই সমস্যার সমাধান করতে। সেই লড়াইয়ে মরিয়া গবেষকরা এখনও পর্যন্ত প্রায় ১০০টি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে অন্যান্য রোগের মকিকিউল থেকে।

সম্প্রতি কোভিড ১৯ ভাইরাস রুখতে যে ভ্যাকসিন মানব শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছে সেই খবর প্রকাশিত হয়েছে দ্য ল্যানসেট-এও। প্রকাশিত পেপারে বলা হয়েছে যে যে ব্যক্তির উপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে তার দেহে ভাইরাসের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠছে। এর আগে ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সি মোট ১০৮ জনের দেহে এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়েছিল। সেখানে দেখা গিয়েছে যাদের দেহে ভ্যাকসিনের একটি ডোজ দেওয়া হয়েছিল তাদের শরীরে কিছু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কোষ (টি সেল) তৈরি হয়েছে দু সপ্তাহের মধ্যে। তবে এটি প্রাথমিক পর্যায়ের পরীক্ষা ছিল এবং এর কার্যকারিতার প্রমাণের জন্য আরও কয়েক হাজার লোকের মধ্যে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে তার যথাযথ বিচার করা হবে।

#এসকেএস/বিবি/২৫-০৫-২০২০

ক্যাটেগরী: বিশ্ব

ট্যাগ: বিশ্ব

বিশ্ব ডেস্ক, বিবি সোম, মে ২৫, ২০২০ ৭:৩৫ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)