তেলের দাম লাগামহীন

তেলের দাম লাগামহীন

খুচরা পর্যায়ে সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রি হচ্ছে না ভোজ্যতেল। মানভেদে খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে নির্ধারিত দামের ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশিতে। কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ –ক্যাব বলছে, শুল্ক কমানোর পাশাপাশি রোজা শুরুর আগেই টিসিবির মাধ্যমে স্বল্প মূল্যে বিক্রি করা হলে দাম নিয়ন্ত্রণ আসবে।

ভোজ্যতেলের দাম নিয়ন্ত্রণে সম্প্রতি দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন মিলগেটে ১০৭ টাকা এবং খুচরা মূল্য ১১৫ টাকা করা হয়। বোতলজাত সয়াবিন লিটার প্রতি খুচরা মূল্য ১৩৫ টাকা। আর পাঁচ লিটার ওজনের বোতলজাত সয়াবিন ৬৩০ টাকা।

কিন্তু ক্রেতাদের অভিযোগ, নির্ধারিত দামে বিক্রি হচ্ছে না ভোজ্যতেল। খুচরায় খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকায়। শুক্রবার রাজধানীর বেশ কিছু মার্কেটে গিয়ে ক্রেতাদের অভিযোগের সত্যতাও পাওয়া গেছে।

দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে সরকারের ব্যবস্থাগ্রণের পরও ভোক্তা পর্যায়ে এর সুফল না আসায় ক্ষুব্ধ ক্রেতারা।

এদিকে বাড়তি চালের দামও। টিসিবির হিসেবে, গত বছরের একই সময়ের চেয়ে নাজির ও মিনিকেট চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৪ থেকে ৬ টাকা। মোটা চালের দর বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকারও বেশি।

কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, 'বাজার নিয়ন্ত্রণে সহনীয় দামে নিত্যপণ্যের সরবরাহ ব্যবস্থা করতে হবে। সেজন্য টিসিবিকে জোরালো ভূমিকা পালন করতে হবে।' যেসব ব্যবসায়ী, সরকার নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করছে না তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শও তার।

#তমহ/বিবি/২২-০২-২০২১

ক্যাটেগরী: ব্যবসা

ট্যাগ: ব্যবসা

ব্যবসা ডেস্ক, বিবি সোম, ফেব্রুয়ারী ২২, ২০২১ ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

Comments (Total 0)