ডিজিটাল বাংলাদেশে এগিয়ে নিতে হবে আরকাইভস

ডিজিটাল বাংলাদেশে এগিয়ে নিতে হবে আরকাইভস

বর্তমান সরকারের দিনবদলের সনদের কারণে ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন বাস্তব। প্রযুক্তিগত এই সুবিধা কাজে লাগিয়ে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ মিলে এগিয়ে নিতে হবে আরকাইভসকে। কারণ জ্ঞানচর্চার পাশাপাশি দেশের ইতিহাস তুলে ধরতে নথিপত্র সংরক্ষণের কোনো বিকল্প নেই। এসব কথা বলেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

৯ জুন বুধবার আন্তর্জাতিক আরকাইভস দিবসে বাংলাদেশ আরকাইভস অ্যান্ড রেকর্ডস ম্যানেজমেন্ট সোসাইটির (বারমস) ভার্চুয়াল আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন তিনি।

এ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বারমস সভাপতি ড. শরীফ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, আরকাইভস বিষয়ে সচেতনতামূলক কাজ চলছে। এটা আরো চালিয়ে যেতে হবে। থেমে গেলে চলবে না। বেসরকারি বা ব্যক্তিপর্যায় থেকেও রেকর্ড সংরক্ষণে কিছু সফলতা পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশ জাতীয় আরকাইভসকে মূল কাজটি করতে হবে বলে তিনি মনে করেন।

এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া এবং সাবেক অতিরিক্ত সচিব ও বারমসের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ। এবার দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘এম্পাওয়ারিং আরকাইভস’ নিয়ে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ইউনিভার্সিটি ব্রুনেই দারুসসালামের ইতিহাস ও আন্তর্জাতিক স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. খোন্দকার ইফতেখার ইকবাল।

তার পাশাপাশি অন্যান্য বক্তারাও নথিপত্র সংরক্ষণে আধুনিক বিশ্বের নানা কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন। সেই তুলনায় বাংলাদেশ যে পিছিয়ে আছে সে বিষয়টি তুলে ধরেন তারা। সম্মিলিত উদ্যোগে নথিপত্র সংরক্ষণের কাজটি দেশে গতিশীল হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তারা। করোনা মহামারির সময়ে চিকিৎসা বিষয়ক নথিপত্র সংরক্ষণে বিশেষ নজর দেয়ার দাবি করেন বক্তারা।

#তমহ/বিবি/০৯-০৬-২০২১

ক্যাটেগরী: জাতীয়

ট্যাগ: জাতীয়

জাতীয় ডেস্ক, বিবি বুধ, জুন ৯, ২০২১ ১০:১৫ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)