নিপুণের মুখে সব সময় হাসি দেখতে চান সায়মন

নিপুণের মুখে সব সময় হাসি দেখতে চান সায়মন

করোনায় মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে অসহায় মানুষের অবস্থা খুবই খারাপ দিকে যাচ্ছে। তাদের পাশে মানবিকতা ও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন চ্চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নিপুণ আক্তার। এই গুণী অভিনেত্রীর কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন আরেক চলচ্চিত্র অভিনেতা সায়মন সাদিক।

সায়মন সাদিক ফেসবুক পোষ্টে নিপুণ আক্তার সম্পর্কে লিখেছেন-একজন নিপুন আপা। হ্যা,আমি উনাকে আপা বলেই ডাকি।খুব আপন মনে হয়। আমি চলচ্চিত্রের একজন সামান্য কর্মী।সেই সুবাদে চলচ্চিত্রের অনেক গুণী ও সন্মানিত মানুষদের সাথে কথা বলার ও চলার সৌভাগ্য হয়েছে।যার যার জায়গা থেকে সবাই ভালো এবং উদার।

অনেকে এই চলচ্চিত্র শিল্প থেকে কোটি কোটি টাকা নিয়েছেন,আবার অনেকে এখানে এসে জীবনের সব কিছু হারিয়েছেন। যে যেই ভাবে চিন্তা করেছেন, সেটাই ফেরত পেয়েছেন। অনেকে বলেন আমাদের এই বি.এফ.ডি.সি নাকি গরম মাজার। বেশি গরম খাইলেই জীবন শেষ। আমার অল্প সময়ে আমি এমন ঘটনা কিছু দেখেছিও।

যাই হোক,আসল কথায় আসি। আমরা সবাই জানি করোনা ভাইরাসের কারণে সারা পৃথিবীর মতো আমাদের দেশের অবস্থাও অনেক খারাপ। দেশের এই খারাপ সময়ে সবাই সবার পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন। যার যার সামর্থ অনুযায়ী।

আপনারা সবাই জানেন,আমাদের বি.এফ.ডি.সি তে প্রায় ১৮ টি সমিতি আছে।এই সমিতি গুলোর মধ্যে বেশীর ভাগ সমিতিই অর্থনৈতিক ভাবে অসচ্ছল(৩/৪ টা সমিতি বাদ দিয়ে)

সব সমিতির নেতারা তাদের সদস্যদের সমস্যা নিয়ে কাজ করছেন,অসচ্ছল সদস্যদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। এছাড়াও আরো অনেক মানুষ আছেন, যারা কোনো সমিতির আওতাভুক্ত সদস্য না, কিন্তু তারা এখানেই বিভিন্ন কাজ করে সংসার চালায়।

এই সকল সমিতির অসচ্ছল মানুষদের এবং আরো অনেক মানুষের পাশে ছাঁয়ার মতো দাড়িয়েছেন নিপুন আপা,দিচ্ছেন আর্থিক সহায়তা। বিভিন্ন সমিতিতে কয়েক লক্ষ টাকা দিয়েছেন শিল্পী সমিতির মাধ্যমে। এনে দিচ্ছেন নিত্যপ্রয়োজনীয় খাবার। গিয়েছেন বৃদ্ধাশ্রমে, কাজ করছেন তাদের জন্য। প্রতিদিন শতশত মানুষের ইফতার দিচ্ছেন। কাজ করে যাচ্ছেন নিরবে।

সেদিন আমার সামনে চলচ্চিত্রের একজন সিনিয়র ফটোগ্রাফার পিন্টু দাদা (সভাপতি-স্থিরচিত্র গ্রাহক সমিতি) তাদের সমিতির জন্য সহযোগীতা নেওয়ার সময় নিপুন আপাকে বললেন, ম্যাডাম আপনি চলচ্চিত্রের ‘মাদার তেরেসা’

এটা শুনে নিপুন আপা হেসে বললেন, আমি খুব সাধারণ। আমি চেষ্টা করছি আমাদের এখানের কোনো লোক যেনো অনাহারে না থাকেন। আমার যতটুকু সামর্থ আছে,তার পাশাপাশি আমার বিভিন্ন পরিচিত জনদের কাছ থেকে এনে আপনাদের আর্থিক সহযোগীতা করছি। যেনে আপনারা ভালো থাকেন। কারণ আপনাদের কারনেই আমি নিপুন। আমি আশা করবো, এখান থেকে যারা কোটি কোটি টাকা উপার্জন করেছেন তারা যেনো কিছু টাকা দিয়ে হলেও চলচ্চিত্রের মানুষদের পাশে দাঁড়ান।

আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম। আমি মনে মনে ভাবছিলাম,আপনি লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েও কোনো নাম চাইছেন না। সবার মুখের হাসিই যেনো আপনার আনন্দ, শান্তি। মহান আল্লাহ্ আপনার এই পুরস্কার নিশ্চই দিবেন।

আল্লাহ্’র কাছে দোয়া করি,তিনি যেনো সবসময় আপনার মুখে এই হাসি দিয়ে রাখেন আপা। আপনি যেনো সবসময় সুখে শান্তিতে থাকেন। কেও যেনো আপনার কোনো ক্ষতি না করতে পারেন। সবার পক্ষ থেকে আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আপা।

এসকেএস/বিবি/১৬-০৫-২০২০

ক্যাটেগরী: বিনোদন

ট্যাগ: বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক, বিবি শনি, মে ১৬, ২০২০ ১:০২ অপরাহ্ন

Comments (Total 0)